শালকেকে উড়িয়ে দিয়ে শেষ আটে ম্যানচেস্টার সিটি

Mar 13,2019 07:02pm খেলা Editor

স্পোর্টস ডেস্ক, ১৩ মার্চ : শালকেকে ৭-০ গোলে বিধ্বস্ত করে দুই লেগ মিলিয়ে ১০-২ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আট নিশ্চিত করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। এই ম্যাচের পর সিটি বস পেপ গার্দিওলা বলেছেন, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ম্যানচেস্টার সিটি কোন দলকে ভয় পায় না। এর আগে শেষ ১৬’র প্রথম লেগের লড়াইয়ে শেষ মুহূর্তে দুই গোল করে ৩-২ গোলের জয় পেয়েছিল সিটি। কিন্তু ইত্তিহাদ স্টেডিয়ামে জার্মান দল শালকেকে দাঁড়াতেই দেয়নি গার্দিওলার শিষ্যরা।

৩৫ মিনিটে স্পট কিক থেকে সার্জিও আগুয়েরোর গোলে এগিয়ে যায় সিটি। তিন মিনিট পর আর্জেন্টাইন এই তারকা ফরোয়ার্ড ব্যবধান দ্বিগুন করেন। ৪২ মিনিটে লেরয় সানের গোলে প্রথমার্ধে ৩-০ ব্যবধানে লিড পায় স্বাগতিকরা। জার্মান তরুন ফরোয়ার্ড সানে তার সাবেক ক্লাব শালকের বিপক্ষে গোলের পাশাপাশি তিনটি গোলে সহযোগিতাও করেছেন। রাহিম স্টার্লিং, বার্নার্ডো সিলভা ও ফিল ফোডেনকে দিয়ে পরপর গোল করিয়েছেন সানে। এরপর ৮৪ মিনিটে গ্যাব্রিয়েল জেসুসের গোলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে বড় জয়ের রেকর্ড গড়ে সিটিজেনরা।

ফেব্রুয়ারিতে লিগ কাপের শিরোপা ঘরে তুলেছিল গার্দিওলার দল। এই মৌসুমে তাদের সামনে কোয়াড্রপেল জয়ের দারুণ এক হাতছানি রয়েছে। লিভারপুলকে এক পয়েন্টের ব্যবধানে পিছনে ফেলে প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে ইংলিশ জায়ান্টরা। আগামী সপ্তাহে সোয়ানসি সিটির বিপক্ষে এফএ কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলতে নামবে গার্দিওলার দল।

ম্যাচ শেষে গার্দিওলা বলেন, প্রথম গোলের পর থেকেই আমরা ভাল খেলতে শুরু করি। আমরা আজ বেশ সিরিয়াস ছিলাম এবং নিজেদের দায়িত্বগুলো সঠিকভাবে পালন করেছি। প্রথমার্ধের শেষ ১৫ মিনিট থেকে পুরো দ্বিতীয়ার্ধটা দুর্দান্ত ছিল। মোট কথা যা যা করতে চেয়েছি তার সবই আজ করতে পেরেছি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নক আউট পর্বে এটা যৌথভাবে বড় জয়ের রেকর্ড। বার্সেলোনার বস হিসেবে দুইবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা হাতে নেয়া গার্দিওলা চলতি সপ্তাহেই বলেছিলেন ইউরোপীয়ান পাওয়ার হাউজদের তুলনায় সিটি এখনো এই প্রতিযোগিতায় ‘টিনএজার’। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা এখনো ঘরে তোলা হয়নি। ২০১৬ সালে গার্দিওলার পূর্বসূরী ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনির অধীনে সেমিফাইালে খেলাই ছিল সিটিজেনদের সর্বোচ্চ সাফল্য। কিন্তু এবারের আসরে রিয়াল মাদ্রিদ ও প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইর মত দল বিদায় নেয়ায় শিরোপার অন্যতম শক্তিশালী দাবীদার হিসেবে সিটিকেও ধরা হচ্ছে। গার্দিওলা বলেন, আমি যখন বলেছিলাম আমাদের দল টিনএজার, তার অর্থ এই নয় যে আমরা লড়াইয়ে টিকে নেই। তরুণদের মধ্যেই জয়ের নেশা থাকে, লক্ষ্য বেশি থাকে। তারা কোন কিছুই ভয় পায় না। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাব। আমি এই শিরোপা দুইবার জয় করেছি, কিন্তু সাতবার হারিয়েছি। এখানে সকল দলই জিততে চায়, কিন্তু সবাইকে বুঝতে হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সম্পূর্ণ ভিন্ন একটি প্রতিযোগিতা। এখানে বিশ্বের সেরা দলগুলোই খেলতে আসে। একটি ম্যাচে পরাজিত হলেই টিকে থাকা অসম্ভব হয়ে পড়ে।

শালকে বস ডোমেনিকো টেডেসকো স্বীকার করেছেন তার মেয়াদে এটাই শালকের সবচেয়ে বাজে ফলাফল। তিনি বলেন, আমি সত্যিই দারুণ হতাশ। ৭-০ গোলে পরাজিত হবার পর এখানে দাঁড়িয়ে থাকাটা কষ্টের। আগামী দুই সপ্তাহ বেশ কঠিন যাবে।

গার্দিওলার দলের আধিপত্য বিরতির ১০ মিনিট আগে দৃশ্যমান হয়। শালকের পেনাল্টি এরিয়ার মধ্যে বার্নাডোর বিপক্ষে জেফরি ব্রুমার চ্যালেঞ্জ থেকে আদায় করা পেনাল্টি ভিএআর’র সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত হয়। শালকে গোলরক্ষক রালফ ফারম্যানকে উল্টোদিকে পাঠিয়ে বল জালে জড়ান আগুয়েরো। তিন মিনিট পর গুনডোগান ও স্টার্লিংয়ের সহায়তা আগুয়েরো ব্যবধান দ্বিগুন করেন। মৌসুমে সব মিলিয়ে এটি তার ২৭তম গোল। যদিও গোলটি নিয়ে বিতর্ক ছিল। পরে আবারো ভিএআর’র সহায়তায় প্রায় সাত মিনিট পর স্টার্লিংয়ের পজিশন অনসাইডে ছিল বলে নিশ্চিত করা হয়। ৪২ মিনিটে শালকের রক্ষণভাগকে ফাঁকি দিয়ে সানে দলের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন।

বিরতির পর ৫৬ মিনিটে সানের দুর্দান্ত পাস থেকে স্টার্লিং অসাধারন ফিনিশিংয়ে দলের পক্ষে চতুর্থ গোলটি করেন। ৭১ মিনিটে বার্নার্ডো আবারো সানের পাস থেকে দলকে পঞ্চম গেল উপহার দেন। ৭৮ মিনিটে সানের পাস থেকে তরুণ মিডফিল্ডার ফোডেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ক্যারিয়ারের প্রথম গোল করেন। ম্যাচ শেষের ৬ মিনিট আগে জেসুস দলের হয়ে সপ্তম গোলটি করলে বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা।

(সন্ধি নিউজ/ডেস্ক/ওএইচ)

সর্ব শেষ খবর