ভারতের গাছাড়া খেলায় হাতছাড়া হলো ম্যাচ

Jul 1,2019 07:16am খেলা Editor

স্পোর্টস ডেস্ক, ০১ জুলাই : স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে বিশ্বকাপে সেমিফাইনালের সমীকরণ আরো কঠিন করে তুলল ভারত। শুধু কি সমীকরণ অপরাজিত থাকার রেকর্ডটাও হাতছাড়া করল রবিশাস্ত্রীর শিষ্যরা। গতকাল বার্মিংহামের এজবাস্টনে ম্যাচের শুরু থেকেই রিলাক্সমুডে ছিল কোহলি বাহিনী। ইংল্যান্ডকে হারাতে না পারা খেসারত কি হবে তা এ মূর্হতে বলা না গেলেও। শেষ চারের হিসেবটা বেশ জটিল হলো। ৮ ম্যাচ থেকে ১৪ পয়েন্ট ধরা ছোঁয়ার বাইরে রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। ৭ ম্যাচ থেকে ভারত ১১ এবং নিউজিল্যান্ড ৮ ম্যাচ থেকে ১১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে। ৮ ম্যাচ থেকে ১০ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ইংল্যান্ড। ৮ ম্যাচ থেকে পাকিস্তান ৯ এবং বাংলাদেশ ৭ ম্যাচ থেকে ৭ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে। কিউইরা তাদের শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের মোকাবেলা করবে। এখানে যারা জিতবে তাদের সেমিতে যাওয়ার পথ প্রস্তত হবে। ভারত যদি তাদের শেষ দুই ম্যাচে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হেরে যায় তা হলে তাদের শেষ চারে যাওয়ার সম্ভাবনা ধুলিসাৎ হয়ে যাবে। টাইগাররা তাদের শেষ দুই ম্যাচে ভারত-পাকিস্তাকে হারাতে পারলে ১১ পয়েন্ট নিয়ে সেমিতে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। অন্য দিকে পাকিস্তান শেষ ম্যাচে জয় পেলে সরফরাজদেরও পয়েন্ট হবে ১১। মোদ্দা কথা যতইদিন গড়াচ্ছে সেমির সমীকরণ ততোই কঠিন হচ্ছে।

ইংল্যান্ড ভারতকে ৩১ রানে হারিয়ে সেমির সম্ভাবনা বাঁচিয়ে রাখলেও এ ম্যাচে দুটি রেকর্ড গড়েছেন রবি শাস্ত্রীর শিষ্যরা। প্রথমটি হচ্ছে অধিনায়ক বিরাট কোহলি এ বিশ^কাপে টানা পাঁচটি ফিফটি হাঁকিয়ে অস্ট্রেলিয়ার স্টিভেন স্মিথের রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন। গত বিশ্বকাপে স্মিথ টানা পাঁচটি হাফ সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছিলেন। অন্য রেকর্ড গড়েছেন ওপেনার রোহত শর্মা। দক্ষিণ আফ্রিকা (১২২) এবং পাকিস্তানের (১৪০) পর ইংল্যান্ডে বিপক্ষেও (১০২) সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। এ ম্যাচে ভারতের হারার কারণ বিশ্লেষণ করলে যে জিনিসটি বেরিয়ে এসেছে তা হচ্ছে কোহলিদের অতি আত্মবিশ্বাসী মনোভাব। প্রথমে বোলাররা ভালো করতে না পারায় ইংলিশরা ৩৩৭ রানের পাহাড় দাঁড় করায়। আমাদের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপের কাছে এ রান তো মামুলি। এমন ধারণা নিয়ে ব্যাট করতে নেমে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা শুরুতে ধীরে সুস্থে রান সংগ্রহ করতে থাকে। এ গা ছাড়া মনোভাবে কারণে শেষ পর্যন্ত হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় কোহলিদের। অনবদ্য ১১১ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইংল্যান্ডের জনি বেয়ারস্টো।

এবারের বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে হেরে যায় ইংল্যান্ড। এরপর শ্রীলঙ্কা এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচে হেরে গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে যাওয়ার শঙ্কায় পড়ে স্বাগতিকরা। ইয়ন মরগানের দলকে এমন শঙ্কা নিয়ে মাঠে নামতে হয় হারের স্বাদ না পাওয়া ভারতের বিপক্ষে। তবে গতকাল আগের দুই ম্যাচের তুলনায় ইংলিশরা ছিল সম্পূর্ণ পরিবর্তিত দল। দলের সবাই ছিলেন বেশ সজাগ। নিজ নিজ জায়গা থেকে বুঝে-শুনেই খেলার চেষ্টা করেন সব ব্যাটসম্যান এবং দলীয় প্রচেষ্টায় শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেট হারিয়ে ৩৩৭ রানের পাহাড়সম স্কোর গড়তে সমর্থ হয় ইংলিশরা।


ওপেনার বেয়ারস্টো ও জেসন রয় ওপেনিং জুটিতে মাত্র ২২.১ ওভারে ১৬০ রান তুলেন। আউট হওয়ার আগে জেসন রয় খেলেন ৫৭ বলে ৬৬ রানের এক অসাধারণ ইনিংস। তিনি আউট হলেও বেয়ারস্টো তার স্বভাবসুলভ ভঙ্গিমায় খেলে যেতে থাকেন। তাকে পাশে থেকে সঙ্গ দেন ওয়ান ডাউনে নামা জো রুট। কিন্তু দলীয় ২০৫ রানের মাথায় শামির ফাঁদে ধরা পড়েন বেয়ারস্টো। সাজঘরে ফেরার আগে নিজের সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। বিশ^কাপে এটিই তার প্রথম সেঞ্চুরি। ভারতীয় বোলারদের মধ্যে মোহাম্মদ শামি ৬৯ রানে ৫ এবং জাদব ও বুমরাহ একটি করে উইকেট লাভ করেন।

(সন্ধি নিউজ/ডেস্ক/ওএইচ)

Developed by e-Business Soft Solution